0

the election office of delhi: সাড়ে ১৩ কোটি টাকার বেশি খরচ, তাতেও রাজধানীতে ভোট টানতে ব্যর্থ কমিশন – the election office of delhi has spent more than rs 13.5 crore in the past few months to encourage voters, but turnout fails to impress


এই সময়ে ডিজিটাল ডেস্ক: সাড়ে ১৩ কোটি টাকার বেশি অর্থ খরচ করেও রাজধানী দিল্লিতে ভোট টানতে ব্যর্থ নির্বাচন কমিশন। গত ১ এপ্রিল থেকে ১১ মে, এই ৪০ দিনে রাজধানীর ভোটারদের বুথমুখি করতে ১১ কোটি টাকা খরচ করেছিল দিল্লির নির্বাচন কমিশন। কিন্তু ২০১৪-র থেকে ৫ শতাংশ পিছনে থেকেই এবার খান্ত থাকতে হল দিল্লিকে। ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে দিল্লিতে মোট ভোট পড়েছিল ৬৫.০৯ শতাংশ। সেখানে এবার এত টাকা খরচ করেও ভোট বেশি তো হলই না বরং তা ৫ শতাংশ হ্রায় পেয়ে হল ৬০ দশমিক ৩৮ শতাংশ।

টাইম্স অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দিল্লির মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক রণবীর সিং জানিয়েছেন, এই ফল দেখে তাঁরা খুবই হতাশ। প্রচুর অর্থ, শ্রম ও সময় ব্যয় করেও তাঁরা ভোটারদের বুথে আনতে ব্যর্থ হয়েছেন। তিনি বলেন, গত ২০১৪ সালের নির্বাচনের সময়ে এপ্রিল মাসে যেমন আবহাওয়া ছিল, তার থেকে এবার আবহাওয়া অনেক ভালো ছিল। তীব্র গরম এবার ছিল না, তার জন্য এবার গরমের ছুটিও পরেনি। যদিও তিনি মনে করেন, ছুটির দিন থাকায় সম্ভবত অনেক ভোটার শহরের বাইরে ছিলেন। তাই তারা ভোট দিতে পারেননি।

কিন্তু এত টাকা খরচ হল কোথায়? তার উত্তরে দিল্লির মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক রণবীর সিং জানিয়েছেন, ইংরিজি, হিন্দি ও অন্য ভাষার খবরের কাগজে বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে প্রধানত। এছাড়াও চলেছে প্রচার অভিযান। যাতে লেগেছে প্রচুর ব্যানার, হোর্ডিং, এবং প্যামফ্লেট। বেতার, মেট্রো রেল, বাসে প্রচারের জন্য তৈরি করা হয়েছিল জিঙ্গাল। একইসঙ্গে ভোট টানতে বাড়ির বিদ্যুৎ ও জলের বিলেও বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রচার করেছে কমিশন। এছাড়াও বলিউডের শিল্পীদের নিয়ে গানে নাচে চলেছে প্রচার। হয়েছে বাইক র‌্যালি, হেরিটেজ ওয়াক, ম্যারাথন, মানববন্ধন, পথ নাটিকা। তাতেও দিল্লিবাসি আসেনি ভোট দিতে। প্রায় ১ কোটি ৪৩ লক্ষ ভোটার দিল্লিতে। যার মধ্যে মাত্র ৮৬ লক্ষ ৪৩ হাজার ভোটার ভোট দিয়েছেন। অন্য দিকে ৬৬৯ জন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটক দের মধ্যে মাত্র ১৭৮ জন ভোট দিয়েছেন।

প্রতিবেদনটি ইংরিজিতে পড়তে ক্লিক করুন।





Source link

amulyam.ooo

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *